২রা আগস্ট, ২০২১ ইং | ১৮ই শ্রাবণ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

EN

লেবাননে বাংলাদেশ দূতাবাসে “বাংলাদেশের উন্নয়ন অর্জন” শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠক ও উন্নয়ন মেলা অনুষ্ঠিত

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৪:১০ অপরাহ্ণ , ৭ অক্টোবর ২০১৮, রবিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 3 years আগে

জহির রায়হান, লেবানন থেকে : লেবাননে ” Develoment Achievements of Bangladesh” শীর্ষক গোলটেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত শুক্রবার (৫ অক্টোবর) বৈরুতের রাউশি এলাকার স্থানীয় পাঁচ তারকা হোটেল ল্যাঙ্কাস্টার প্লাজার বলরুমে বাংলাদেশের জাতীয় উন্নয়ন মেলা ২০১৮ উদযাপন উপলক্ষে বাংলাদেশ দূতাবাস বৈরুত এ গোল টেবিলের আয়োজন করে।

গোল টেবিল বৈঠকে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করছেন মান্যবর রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার।

দূতাবাসের কাউন্সেলর ও দূতালয় প্রধান সায়েম আহমেদ এর সঞ্চালনায় বৈঠকে লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর রাষ্ট্রদূত আবদুল মোতালেব সরকার মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। বৈঠকে লেবাননের ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারী ছাড়াও বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠন, মিডিয়া ব্যক্তিত্ব, সুশীল সমাজের সদস্যগণ উপস্থিত ছিলেন। দুই দেশের জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মাধ্যমে বিকেল তিনটায় গোল টেবিল বৈঠকের কার্যক্রম শুরু হয়।

গোল টেবিল বৈঠকে আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দের একাংশ।

মূল প্রবন্ধে রাষ্ট্রদূত, বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ করে গত দশ বছরে সরকারের  অর্জিত সাফল্য তুলে ধরেন। তিনি বাংলাদেশের বিদ্যমান ব্যবসা ও বিনিয়োগ পরিবেশ তুলে ধরে লেবাননের বিনিয়োগকারীদেরকে বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহবান জানান। অতঃপর প্রশ্নোত্তর পর্বের মাধ্যমে বৈঠকটি শেষ হয়। রাষ্ট্রদূত তাঁদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। উপস্থিত অতিথিরা  বিভিন্ন ক্ষেত্রে বাংলাদেশের  উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং বাংলাদেশের সাথে ব্যবসা ও বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেন। সবশেষে অংশগ্রহণকারী অতিথিরা রাষ্ট্রদূত আয়োজিত রিসেপশনে অংশ নেন।

এদিকে বৈরুতে বাংলাদেশ দূতাবাস প্রবাসীদের জন্য দিনব্যাপী অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। ঐতিহ্যবাহী সামগ্রী ও বেলুন দিয়ে সজ্জিত করা হয় দূতাবাস প্রাঙ্গণকে। রাজধানী বৈরুতে দূতাবাসের হলরুমে বর্ণাঢ্য এই মেলার উদ্বোধন করেন মান্যবর রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার।

দিনব্যাপী মেলায় প্রবাসী বাংলাদেশীদের তাৎক্ষণিক সমস্যার সমাধান দিচ্ছেন মান্যবর রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার।

দিনব্যাপী এ মেলার মধ্যে অন্যতম ছিল তাৎক্ষণিক ভাবে প্রবাসীদের বিভিন্ন সমস্যার সমাধান দেয়া। অনেকেই দূতাবাসে উপস্থিত হয়ে এ সেবা গ্রহন করেন। তাছাড়া দূতাবাসে সারাদিনব্যাপী সরকারের নানা সাফল্যের উপর প্রামান্যচিত্র প্রদর্শণ করা হয়।

বিকালে দূতাবাসের কাউন্সেলর ও দূতালয় প্রধান সায়েম আহমেদ এর সঞ্চালনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের গৃহীত উন্নয়ন কার্যক্রমের উপর একটি আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

দূতাবাস হলরুমে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখছেন মান্যবর রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার।

উন্মুক্ত আলোচনা ও স্বাগত বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত বাংলাদেশের উন্নয়নের ক্রমধারা বিশ্লেষণ ও বিভিন্ন খাতে বাংলাদেশের অগ্রগতি তুলে ধরেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গতিশীল নেতৃত্ব দিয়ে দেশকে উন্নত ও আধুনিক রাষ্ট্র হিসেবে প্রতিষ্ঠায় কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন। যার ফলশ্রুতিতে আজকে বাংলাদেশ এমন একটা জায়গায় পৌঁছেছে, যে জায়গায় আমাদেরকে জোর করে দাবিয়ে রাখার সুযোগ নেই।

প্রবাসীদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আজকে বাংলাদেশের এই সাফল্যের অংশীদার আপনারাও। ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দশটি বিশেষ উদ্যোগ ও টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট অর্জনে তিনি প্রবাসী সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

আলোচনা সভায় অংশগ্রহণকারী প্রবাসী বাংলাদেশীদের উপস্থিতি।

উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক উন্নয়নের ওপর প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শন ও বিশ্লেষণধর্মী উপস্থাপনা করা হয়। এ ছাড়া দেশের বিভিন্ন খাত ভিত্তিক উন্নয়ন তুলে ধরা হয়। পরে বাংলাদেশের উন্নয়নে প্রবাসীদের ভূমিকা নিয়ে উন্মুক্ত আলোচনা ও প্রশ্নত্তোর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

এ আলোচনায় প্রবাসী বাংলাদেশীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন। দেশের উন্নয়ন নিয়ে আয়োজিত মেলা ও আলোচনায় অংশগ্রহণ করতে পেরে প্রবাসীরা তাদের সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন ও দূতাবাসকে ধন্যবাদ জানান। এ সময় তারা দেশের উন্নয়নে যেকোনো ত্যাগ স্বীকারে ও এই প্রক্রিয়ায় সক্রিয় অংশগ্রহণের আশ্বাস প্রদান করেন।

সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রবাসী বাংলাদেশী “স্বাধীন বাংলা” শিল্পীবৃন্দরা গান পরিবেশন করছেন।

পরে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন “স্বাধীন বাংলা ব্যান্ড” নামক স্থানীয় প্রবাসী শিল্পীবৃন্দ। বঙ্গবন্ধু ও তাঁর কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উন্নয়নমূলক কর্মকান্ড নিয়ে গান গাওয়ার পর উপস্থিত দর্শকশ্রোতাদের বাঁধ ভাঙা উল্লাসে সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা আরো মনোমুগ্ধকর হয়ে উঠে। এভাবেই রাত ৮টা পর্যন্ত চলে উন্নয়ন মেলার উৎসব। পরে নৈশভোজের মাধ্যমে অনুষ্ঠানটির সমাপ্তি ঘটে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

October 2018
M T W T F S S
« Sep   Nov »
1234567
891011121314
15161718192021
22232425262728
293031  
আরও পড়ুন