৮ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং | ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

EN

লেবাননে বাংলাদেশ দূতাবাস বৈরুত এর আয়োজনে গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১২:৪২ পূর্বাহ্ণ , ১৭ মে ২০১৮, বৃহস্পতিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 5 years আগে

লেবানন থেকে জহির রায়হান: বাংলাদেশ দূতাবাস বৈরুত এর আয়োজনে লেবাননে “এলডিসি থেকে বাংলাদেশ এর উত্তরণ : ব্যবসায়, বিনিয়োগ এবং সংযোগের সম্ভাবনা” নিয়ে শীর্ষক এক গোল টেবিল বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার (১৫ মে) বেইত মেরি মিউনিসিপালিটির লাইব্রেরির কনফারেন্স রুমে  বাংলাদেশ দূতাবাস বৈরুত ও লেবানিজ থিংক ট্যাংক ইশতিশারিয়া (ISTICHARIA-ISCS) এর যৌথ উদ্যোগে এ শীর্ষক গোল টেবিল বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। সন্ধ্যা ৬টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী এ বৈঠকের শুরুতে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ এবং ১০টি মেগা প্রকল্পসহ বাংলাদেশ সরকার কর্তৃক গৃহীত বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের উপর ১০ মিনিটের একটি ভিডিও চিত্র প্রদর্শন করা হয়।

উক্ত গোল টেবিল বৈঠকে প্রধান অতিথি ছিলেন, লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের মান্যবর রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার। এ সময় গোলটেবিল বৈঠকে দূতাবাসের কাউন্সেলর ও দূতালয় প্রধান সায়েম আহমেদ, দূতাবাসের কর্মকর্তা-কর্মচারী, লেবাননের রাজনৈতিক, সামাজিক ও দেশী-বিদেশী মিডিয়ার প্রতিনিধিসহ ব্যবসায়িক ও বিনিয়োগকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিগন উপস্থিত ছিলেন। এতে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন লেবাননে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত আবদুল মোতালেব সরকার। পরে মূল প্রবন্ধের উপর ইশতিশারিয়ার প্রতিনিধি ইমাদ রিজিক সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন।

মূল প্রবন্ধে রাষ্ট্রদূত আব্দুল মোতালেব সরকার বলেন, বাংলাদেশ এখন উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে স্বীকৃতি অর্জন করেছে। জাতিসংঘ কর্তৃক গত ১৭ মার্চ ২০১৮ তারিখে বাংলাদেশকে স্বল্পোন্নত দেশ থেকে উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের এ স্বীকৃতি প্রদান করা হয়। তিনি বলেন, ভারত, নেপাল, ভুটান, চীন, দক্ষিণ কোরিয়াসহ বিভিন্ন দেশগুলো বাংলাদেশের সাথে দ্বিপাক্ষিক চুক্তির মাধ্যমে প্রচুর ব্যবসা ও বিনিয়োগ করছে। উন্নয়নশীল দেশে উত্তরণের পর এর সম্ভাবনা আরো ব্যাপক বৃদ্ধি পেয়েছে।

বাংলাদেশের সাথে ব্যাবসা এবং বিনিয়োগ করতে লেবানিজ বিনিয়োগকারী প্রতিনিধিদের আহ্বান জানিয়ে রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশের সাথে ব্যবসা এবং বিনিয়োগে ব্যাপক সুযোগ রয়েছে। যেমন, বাণিজ্য, বিনিয়োগ ও সাধারণ ব্যবসা, আইসিটি খাতে বিনিয়োগ, এসইজেড, কৃষি ও জার্ম প্লাজম, পোশাক শিল্প, ঔষধ এবং পর্যটনসহ বিভিন্ন খাতে। এসব খাতে ব্যবসা ও বিনিয়োগ কেন করবে তার ব্যাখ্যা এবং বিবরণ তুলে ধরে অন্তত একবার বাংলাদেশ থেকে ঘুরে আসতে এসব উদ্যোক্তা, ব্যবসায়ী ও বিনিয়োগকারীদের উদাত্ত আহ্বান করেন তিনি।

পরে রাষ্ট্রদূত উপস্থিত প্রতিনিধিদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন। এ সময় বৈঠকে উপস্থিত প্রতিনিধিরা বাংলাদেশের বিভিন্ন উন্নয়নের ভূয়সী প্রশংসা করেন। তাঁরা বাংলাদেশের সাথে ব্যবসা ও বিনিয়োগে গভীর আগ্রহ প্রকাশ করেন।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

May 2018
M T W T F S S
 123456
78910111213
14151617181920
21222324252627
28293031  
আরও পড়ুন