৬ই ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ইং | ২৪শে মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

EN

বাঞ্ছারামপুরের প্রবল বর্ষণে তলিয়েছে ৫ শতাধিক হেক্টর জমি

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১০:২৯ অপরাহ্ণ , ২৩ এপ্রিল ২০১৭, রবিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 6 years আগে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া  বাঞ্ছারামপুরে সপ্তাহ জুড়ে   প্রবল বর্ষণে  আর উজান থেকে নেমে আসা বৃষ্টির পানি ও মেঘনার নদীর  জোয়ারের পানি হাওয় অঞ্চলে  নেমে আসায় বাঞ্ছারামপুর উপজেলার বেশ কয়েকটি  গ্রামের প্রায় ৫ শতাধিক  হেক্টর বোরো ফসল পানিতে  তলিয়ে গেছে। সরেজমিনে দেখা যায়, বাশগাড়ি,বাহেরচর,শান্তিপুর,ভুড়ভুড়িয়া,ছলিমাবাদ,নিলখী,হোসেনপুর,সাবনগর,দড়িবাঞ্ছারামপুর,ধাড়িয়ারচর,মনাইখালি,ছবুরকান্দিখোষকান্দি,চারআনি,মায়ারামপুর,বুধাইরকান্দি,রাধারনগর,কালিকাপুর গোকুল নগর গ্রামের বোরো আবাদী জমি পানিতে তলিয়ে গেছে। মেঘনা নদীর পানি ও উজান থেকে বৃষ্টির পানি নামতে থাকার কারনে প্রাকৃতিক এমন দূর্যোগ  হয়েছে বলে উপজেলা কৃষি অফিস। ফলে আবাদী বোরো ফসলি জমি থেকে দ্রুত পানি নিস্কাশন না হওয়ায় এবং থেমে থেমে বৃষ্টি অব্যাহত থাকার কারনে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা করছেন কৃষকরা।দড়ি বাঞ্ছারামপুর গ্রামের কৃষক আক্কাছ মিয়া,শান্তিপুরের মোহাম্মদ মিয়া সহ ক্ষতিগ্রস্ত অনেক কৃষকরা মনে করছে ,আকষ্মিক বৃষ্টির কারনে ও মেঘনার পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় বোরো নির্ভরশীল আবাদি ফসলী জমির পাকা ধানী জমি সম্পূর্ণরূপে তলিয়ে গেছে। আউশ ও আমন মৌসুমে বন্যার ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কায় এসব এলাকার কৃষকরা বোরো নির্ভরশীল হয়ে উঠেন।এখন বোরো ফসল তলিয়ে যাওয়ায় তাদের বড় ধরনের ক্ষতি গুনতে হচ্ছে।

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর কতৃপক্ষ বলেন,বাঞ্ছারামপুরে সাড়ে নয় হাজার হেক্টর হতে সবমিলিয়ে প্রায় ৫০০ হেক্টর ফসলি আবাদি জমি তলিয়ে যেতে পারে।সঠিক হিসেব বলতে গেলে সময় লাগবে। তবে পানি দ্রুত নিষ্কাষিত হলে তেমন ক্ষয়ক্ষতি হবে না । তবে কচুরি পানা এই বছর বুরো চাষিদের ব্যাপক ক্ষতি করেছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

April 2017
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
আরও পড়ুন