২৪শে এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

EN

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের উপনির্বাচনে নৌকার প্রার্থী হতে চান এড.মনতূ

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১০:১২ অপরাহ্ণ , ২৩ ডিসেম্বর ২০২২, শুক্রবার , পোষ্ট করা হয়েছে 1 year আগে

মো.তাসলিম উদ্দিন সরাইল( ব্রাহ্মণবাড়িয়া) সরাইল উপজেলার জনপ্রিয় নেতা এড. আশরাফ উদ্দিন মনতু। তিনি একাধারে একজন আইনজীবী ,ও রাজনীতিবিদ।মনতু সরাইল উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক, উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি ও বর্তমান উপজেলা আওয়ামী লীগ কমিটির সাধারণ সম্পাদ প্রার্থী ছিলেন। সম্প্রতি ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের বিএনপির সংসদ সদস্য উকিল আবদুস সাত্তার ভূইঁয়া এমপি পদত্যাগ করলে আসনটি শূন্য পদ হয়ে যায়।
এবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের উপনির্বাচনে নৌকার প্রার্থী হতে চান আইনজীবী মো. আশরাফ উদ্দিন মনতু। গতকাল সরাইল উপজেলা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে সাংবাদিকদের
সঙ্গে মত বিনিময় সভায় প্রার্থী হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন তিনি। উপ-নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার প্রসঙ্গে উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সাবেক সভাপতি এড. আশরাফ উদ্দিন মনতু বলছেন,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া -২ আসনে সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসেবে যদি আমাকে মনোনয়ন প্রদান করেন, আমার এলাকার মানুষের সেবা করার সুযোগ দেন, তাহলে আমি নির্বাচনে প্রার্থী হতে আগ্রহী।
উল্লেখ্য গত ১১ ডিসেম্বর পদত্যাগ করলে
ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২আসনের সংসদ সদস্য উকিল আবদুস সাত্তার ভূইঁয়া। ফলে ওই আসনটি বর্তমানে শূন্য। সরাইল- আশুগঞ্জ উপজেলা নিয়ে গঠিত ব্রাহ্মণবাড়িয়া- ২আসন।
মনতু আরও বলেন,তিনি নিজেকে একজন রাজনৈতিক কর্মী হয়ে এলাকার মানুষের পাশে ছিলাম। আইনজীবী হিসাবে ও মানুষের জন্য কিছু করার চেষ্টা করেছি। আজীবন মানুষের পাশে থেকে মানুষের জন্য কাজ করতে চাই। আমি আমার সবকিছুর বিনিময়ে এবার মানুষের সেবা করতে চাই। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি গ্রাম হবে শহর এর বাস্তবায়নে আমি সরাইল- আশুগঞ্জ এলাকার এই আসন থেকে নির্বাচন করতে চাই।এড.মনতু এর আগে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া -২ আসন থেকে নৌকার টিকিট চেয়েছিলেন। কিন্তু দল থেকে মনোনয়ন দেওয়া হয় মহাজোট প্রার্থীকে। দলের আদেশ অনুসরণ করে আমি আমার প্রার্থীতা প্রত্যাহার করি। আমি সরাইল উপজেলা আওয়ামী যুবলীগের সভাপতি, সরাইল সরকারি কলেজের ছাত্র লীগের সিনিয়র সভাপতি,সরাইল সদর ইউনিয়ন ছাত্রলীগের লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি ছিলাম, এ ছাড়াও বেশ কিছু সামাজিক সংগঠনের সঙ্গে জড়িত। পারিবারিক অবস্থান ও সামাজিক কাজের কারণে জনগণের সমর্থনে এবার নৌকার প্রার্থী হতে চাই। আইনজীবী মনতু বলেন,আমার বিশ্বাস আমাকেই নৌকা প্রতীকে মনোনয়ন দেওয়া হবে। বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়ন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশে এ উপ-নির্বাচনে আমি সংসদ সদস্য নির্বাচিত হলে সরাইল- আশুগঞ্জ ডিজিটাল উপজেলায় রূপান্তরিত করব। আত্নবিশ্বাসী এ নেতা সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়ে এসব কথা বলেন। দীর্ঘ সময় ধরে নিজ নির্বাচনী এলাকার মানুষের পাশে থাকা এড. মনতু আরো বলেন, সরাইল- আশুগঞ্জ কোনো মানুষ বিপদে পড়লে সবার আগে আমি ছুটে যাই। দল, মত নির্বিশেষে সবার উপকার করাই আমার ব্রত। এড.মনতু বলেন, উপ-নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে অনেকেই প্রার্থী হতে চাচ্ছেন। বিষয়টি খুবই ইতিবাচক। গণতান্ত্রিক দল হিসাবে আওয়ামী লীগে এমন প্রতিযোগিতা থাকবেই। তবে উপ- নির্বাচনে আমার মতো তরুণ, উদ্যমী এবং কর্মীবান্ধব নেতাকে মনোনয়ন দিলে বিপুল ভোটে জয়ী হতে পারবো। কারণ ইতিমধ্যে নির্বাচনী এলাকা গুছিয়ে আনতে পেরেছি। তৃণমূল আওয়ামীলীগ আমাকেই সমর্থনও করছে। নেত্রী (শেখ হাসিনা)’র কথায় গত নির্বাচনে নিজেকে সরিয়ে নিয়ে ছিলাম নির্বাচনী মাঠ থেকে। এবার আশা করছি নেত্রী আমার সেই ত্যাগের মূল্যায়ন করবেন-যোগ করেন এড. মনতু আরো বলেন, আমি তৃণমূলের প্রতিটি গ্রামে গ্রামে যাচ্ছি, সরকারের উন্নয়নের চিত্র ভোটারদের কাছে তুলে ধরছি।শিক্ষাক্ষেত্রে স্কুল কলেজের বিভিন্ন মাদ্রাসার শিক্ষার উন্নয়নেও কাজ করে যাচ্ছেন এবং ভবিষ্যতেও এ ধারা অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি। এমপি হতে পারলে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ একটি বিশেষায়িত শিল্পাঞ্চল করার পরিকল্পনাও রয়েছে মনতুর। যার ফলে কর্মসংস্থান তৈরি হবে। মাদক ও সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়ে কাজ করতে চান তিনি।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

December 2022
M T W T F S S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  
আরও পড়ুন