৭ই অক্টোবর, ২০২২ ইং | ২২শে আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

EN

মাদক নিরাময় কেন্দ্রে যুবককে পিটিয়ে হত্যা

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১২:২০ পূর্বাহ্ণ , ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, সোমবার , পোষ্ট করা হয়েছে 3 years আগে

আব্দুস সাত্তার, সাভার: সাভারে ‘আদর’ নামে একটি মাদক নিরাময় কেন্দ্রে জাহাঙ্গীর মিয়া (৩৮) নামে এক মানসিক ভারসাম্যহীন যুবককে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে উপজেলার এনাম মেডিকেল কলেজে হাসপাতালের জরুরি বিভাগে ওই যুবকের লাশ ফেলে যায় মাদক নিরাময় কেন্দ্রের কর্তৃপক্ষ।

নিহত জাহাঙ্গীর ময়মনসিংহের বাসিন্দা মৃত হাফিজ উদ্দিনের ছেলে। তিনি সাভারের তালবাগ এলাকায় ভাড়া বাসায় থেকে বড় ভাইয়ের সাথে ওই এলাকায় হোটেল ব্যবসা করতেন।

অভিযুক্ত ‘আদর’ মাদক নিরাময় কেন্দ্রটি সাভারের রেডিও কলোনীর উত্তরা মার্কেটে চিকিৎসা কার্যক্রম চালিয়ে আসছে।

নিহতের ভাই মানিক জানান, মানসিক ভারসাম্যহীন থাকায় জাহাঙ্গীরকে গত বৃহস্পতিবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) বিকেলে রেডিও কলোনীর ‘আদর’ মাদক নিরাময় কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। পরে রাতে ফোন করে তার শারীরিক অবস্থা জানতে চাইলে রিহ্যাব থেকে জানানো হয় সে ভালো আছে। এরপর সকালে বারবার ফোন করা হলেও তারা আর সাড়া দেয়নি।

পরে শুক্রবার দুপুর ১২টার দিকে ওই মাদক নিরাময় কেন্দ্র থেকে ফোন করে জাহাঙ্গীরের ভাই মানিককে দ্রুত এনাম মেডিকেলে যেতে বলেন। সেখানে জরুরি বিভাগে গিয়ে জাহাঙ্গীরের মরদেহ দেখতে পায় স্বজনরা। তবে ঘটনাস্থলে সেসময় ‘আদর’ মাদক নিরাময় কেন্দ্রের কাউকে পাওয়া যায়নি।

নিহত জাহাঙ্গীরের স্ত্রীর ভাই মো: সাদেক বলেন, হাসপাতালে গিয়ে তার মরদেহ দেখতে পাই। তার সারা গায়ে মারের চিহ্ন আছে। ওই রিহ্যাবে মারধরের কারণেই তার মৃত্যু হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি।

এবিষয়ে সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মনিরুজ্জামান বলেন, একদিন আগেই জাহাঙ্গীরকে ওই নিরাময় কেন্দ্রে ভর্তি করা হয়। মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে নিহতের ঘাড়, চোখসহ শরীরের বিভিন্ন অংশে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

মৃত্যুর কারণ নিশ্চিত হতে ময়নাতদন্তের জন্য নিহতের লাশ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্ত শেষে মৃত্যুর কারণ জানা যাবে। এব্যাপারে সাভার মডেল থানায় মামলা দায়েরর প্রস্তুতি চলছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

February 2020
M T W T F S S
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
242526272829  
আরও পড়ুন