৮ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং | ২৩শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

EN

ইরাকে মার্কিন বিমানঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ৯৩ জন সৈন্য নিহত

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ২:৩১ পূর্বাহ্ণ , ৯ জানুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার , পোষ্ট করা হয়েছে 3 years আগে

জেনারেল কাসেম সোলেইমানির হত্যার প্রতিশোধ নিতে ইরাকে মার্কিন বিমানঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইরান। আজ বুধবার ভোররাতে এই ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায় ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ড (আইআরজিসি)।

যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষ থেকে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়েছে। ইরাকে মার্কিন বিমানঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার সেই ভিডিও ইতিমধ্যেই বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ করা হয়েছে।

ইরানের আধা-সরকারি সংবাদ সংস্থা তাসনিম নিউজ অ্যাজেন্সির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, বুধবার স্থানীয় সময় ভোর সাড়ে ৫টার দিকে প্রথম হামলাটি চালানো হয়। এর এক ঘণ্টা পর মার্কিন বিমানঘাঁটিতে দ্বিতীয় দফায় হামলা চালায় ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনী।

ফরাসী বার্তাসংস্থা এএফপি বলছে, বুধবার সকালের দিকে ইরাকে মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে এক ডজনের বেশি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করেছে ইরান। দেশটির বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর অভিজাত শাখা কুদস ফোর্সের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেইমানি হত্যাকাণ্ডের পর থেকে কঠোর প্রতিশোধের হুমকির মাঝে এই হামলা চালিয়েছে তেহরান।

পেন্টাগন বলছে, ইরাকে মার্কিন সামরিক ও মিত্র বাহিনীর ওপর এক ডজনের বেশি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালিয়েছে ইরান। হামলার প্রাথমিক ক্ষয়ক্ষতির তথ্য মূল্যায়ন করা হচ্ছে। তিনি ইরানের বিপ্লবী বাহিনীর সবচেয়ে প্রভাবশালী কমান্ডার ছিলেন। মধ্যপ্রাচ্যে জঙ্গিবিরোধী লড়াইয়ে তার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে।

এদিকে ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের খবরে বলা হয়েছে, জেনারেল কাসেম সোলেইমানি হত্যার প্রতিশোধ হিসেবে মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে হামলা চালানো হয়েছে। প্রতিশোধমূলক এই হামলার পরে যুক্তরাষ্ট্র কোনো ধরনের হামলা চালানোর চেষ্টা করলে তাদের সামরিক ঘাঁটিগুলো আরও ভয়াবহভাবে গুঁড়িয়ে দেওয়া হবে।

গত ৩ জানুয়ারি মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে ইরানের বিপ্লবী গার্ড বাহিনীর বিদেশি সশস্ত্র শাখা কুদস ফোর্সের প্রধান জেনারেল কাসেম সোলেইমানিকে ড্রোন হামলা চালিয়ে হত্যা করা

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

January 2020
M T W T F S S
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031  
আরও পড়ুন