৮ই ডিসেম্বর, ২০২২ ইং | ২৪শে অগ্রহায়ণ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

EN

সুমনকে নাসিরনগর উপজেলা চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় তার সমর্থকরা

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৮:৩৭ পূর্বাহ্ণ , ১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, শুক্রবার , পোষ্ট করা হয়েছে 4 years আগে

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর প্রতিনিধি : আসন্ন উপজেলা পরিষদ নিবার্চনে তরুণ ব্যবসায়ী পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ, সমাজ সেবক ত্যাগী আওয়ামী পরিবারের সন্তান শরিফুজ্জামান চৌধুরী (সুমন) কে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসেবে দেখতে চায় তার সমর্থকরা।

কে সেই সুমন? ১৯৮৬ সালের ২ মার্চ জেলার নাসিরনগর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী বুড়িশ্বর ইউনিয়নের আশুরাইল বেনীপাড়ার মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামী পরিবারের সন্তান বর্তমান নাসিরনগর সদরের স্থায়ী বাসিন্দা শরিফুজ্জামান চৌধুরী (সুমন)। তার পিতা- মরহুম হাজ্বী নূরুল ইসলাম চৌধুরী অবসর প্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা, মাতা- কামরুন্নাহার চৌধুরী গৃহিনী। তিন ভাই দুই বোনের মাঝে ৪র্থ সুমন।

ছাত্রজীবনঃ নাসিরনগর মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় থেকে শিক্ষা জীবন শুরু করে ২০০১ সালে নাসিরনগর আশুতোষ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস.এস.সি, ২০০৩ সালে নাসিরনরগ ডিগ্রি মহাবিদ্যালয় থেকে এইচ.এস.সি ২০০৮ সালে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বি.এ সম্মান ও ২০০৯ সালে একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এম.এ ফার্স্টক্লাশ সেকেন্ড হয়। বর্তমানে সে বিবাহিত ও এক পুত্র সন্তানের জনক। স্ত্রী সাদিয়া আফরিন (তৃণা) ঢাকার বদরুন্নেছা সরাকারি মহিলা কলেজ থেকে অর্থনীতিতে মার্স্টাস সম্পন্ন করেছে।

রাজনৈতিক ও সামাজিক পরিচিতিঃ বাংলাদেশ ছাত্রলীগ নাসিরনগর উপজেলা শাখার যুগ্ম আহবায়ক, সাবেক বিজ্ঞান ও গ্রন্থনা বিষয়ক সম্পাদক চট্টগ্রামস্থ নাসিরনগর ছাত্রকল্যাণ সমিতির সাবেক সভাপতি, নবীন উদয় ক্রীড়া সংগঠনের সাবেক সভাপতি, স্বেচ্ছায় রক্তদান রক্তিমিনা ও মানব কল্যাণ সামাজিক সংগঠন স্বপ্নের যাত্রার উপদেষ্ঠা।

পারিবারিক বর্ণনাঃ বাবা মরহুম অবসরপ্রাপ্ত ব্যাংক কর্মকর্তা ছিলেন নাসিরনগর আওয়ামীলীগের পৃষ্ঠপোষক। ১৯৮৩ সালে আওয়ামীলীগ করার অপরাধে বিএনপি জামাত জোট সরকারের আমলে তাকে বদলী করা হয় কক্সবাজারে। আপন বড় চাচা মরহুম বাচ্চু চৌধুরী ছিলেন একজন বীর মুক্তিযোদ্ধা ও আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাকালীন সহ-সভাপতি।

১৯৭৩ সালে তিনি ছিলেন বুড়িশ্বর ইউনিয়নের ভাইস চেয়ারম্যান। ১৯৭৫ সালে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার প্রতিবাদে নাসিরনগর সদরে মিছিলের প্রস্তুতি কালে জিয়াউর রহমান সরকারের আমলে সেনাবহিনী বাচ্চু চৌধুরীকে ধরে নিয়ে তার উপর চালায় অমানবিক নির্যাতন। যার যন্ত্রনায় তিনি আমৃত্যু বয়ে গেছেন।

বড় ভাই নুরআলম চৌধুরী সাবেক ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি সহ ছাত্রলীগের বিভিন্ন দায়িত্ব পালন করেছে। বর্তমানে তিনি একজন এনজিও কর্মকর্তা। মেঝো ভাই নুরুজ্জামান চৌধুরী ১৯৯২ সালে নাসিরনগর ছাত্রলীগের কমিটিতে সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন। পরবর্তীতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে অধ্যায়নরত কালে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে গুরুত্ব পূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

বড় বোন রাজিয়া সুলতানা আঁখি একজন গৃহীনি, ছাত্র রাজনীতিতে তারও যথেষ্ঠ অবদান রয়েছে। ছোট বোন চৌধুরী জান্নাত রাঁখি একজন সমাজকর্মী। সে বাংলাদেশ মাদক র্নিমূল শক্তি কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি, মানবাধিকার কমিশন হবিগঞ্জ শাখার সহ-সভাপতি, আর্ন্তজাতিক মহিলা সংগঠনের সদস্য ছাড়াও সে বিভিন্ন সাহিত্য ও সামাজিক সংগঠনের সাথে জড়িত।

ব্যবসা ও পেশায় শরিফুজ্জামান চৌধুরী বেসরকারী মুটোফোন সংস্থা গ্রামীন ফোনের, নাভানা (এলপিজি গ্যাসের) নাসিরনগর উপজেলা শাখার ডিলার, বুড়িশ্বর এনবিএগ্রো ফার্ম ও রাইট মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি লিঃ এর পরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন। সে প্রতিটি নিবার্চনে দলীয় প্রার্থীর পক্ষে নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি আগামী উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে সকলের দোয়া, আর্শিবাদ ও সমর্থন প্রত্যাশী।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

February 2019
M T W T F S S
 123
45678910
11121314151617
18192021222324
25262728  
আরও পড়ুন