২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং | ১০ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

EN

সি.আই.টি টেকনিক্যাল ইনস্টিটিউট আয়োজিত আলোচনায় জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান বলেন ‘দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে কারিগরি শিক্ষার বিকল্প নেই’

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ১১:৫২ অপরাহ্ণ , ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮, মঙ্গলবার , পোষ্ট করা হয়েছে 3 years আগে

গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার কারিগরি শিক্ষা বোর্ড আনুমোদিত সি.আই.টি টেকনিক্যাল ইন্সটিটিউটের আয়োজনে সার্টিফিকেট বিতরণ ও “বেকার সমস্যা সমাধানে কারিগরি শিক্ষা” শীর্ষক এক আলোচনা সভা গত ১৫-০৯-২০১৮ রোজ- শনিবার দুপুরে জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান। এতে সি.আই.টি টেকনিক্যাল ইনস্টিটিউটের পরিচালক ইঞ্জিনিয়ার জোবাইর আহাম্মদ রানার সভাপতিত্বে প্রধান আলোচক ছিলেন বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের কারিকুলাম বিশেষজ্ঞ ড. মোঃ সুলতান হোসেন, বিশেষ অতিথি ছিলেন আনসার ও গ্রাম প্রতিরক্ষা বিভাগের পরিচালক মাহবুবুর রহমান(পিএএমএস), অ্যাড. মোঃ লোকমান হোসেন, এপিপি জজ কোর্ট, ব্রাহ্মণবাড়িয়া, বাংলাদেশ টেকনিক্যাল রিসার্চ এসোশিয়েসনের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার মোদাচ্ছের হোসেন সিরাজী, জেলা শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক মোঃ সাহিদুল ইসলাম প্রমুখ। প্রধান অতিথির বক্তব্যে জেলা প্রশাসক বলেন,দক্ষ জনশক্তি গড়ে তুলতে কারিগরি শিক্ষার বিকল্প নেই। তিনি বলেন বর্তমান সরকার কারিগরি শিক্ষার উপর গুরুত্ব দিয়ে দিয়ে বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী মেক হাসিনা বলেছেন প্রতি উপজেলায় একটি করে টেকনিক্যাল স্কুর এন্ড কলেজ স্থাপনের প্রকল্প গ্রহন করেছে । ইতোমধ্যে ১০০টির কাজ শুরু করা হয়েছে । তিনি আরো বলেন, কারিগরি শিক্ষা প্রদানে “সিআইটি টেকনিক্যাল ইনস্টিটিউট ” প্রশংসনীয় উদ্যোগ গ্রহন করেছে । আমি তাদের এই ধরনের উদ্যোগমুখী কার্যক্রমকে স্বাগত জানাই। আমি আশা করব, কারিগরি শিক্ষার মাধ্যমে বেকার সমস্যা সমাধানে সি.আই.টি টেকনিক্যাল ইনস্টিটিউট কিছুটা হলেও অবদান রাখবে। উল্লেখ্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌর শহরের দক্ষিণ মৌড়াইলস্থ “সি.আই.টি টেকনিক্যাল ইনস্টিটিউট বিগত ২০১২ সাল থেকে সুনামের সহিত বিভিন্ন কারিগরি ও কম্পিউটার প্রশিক্ষণ প্রদান করে আসছে। আলোচনা শেষে ২২০ জন শিক্ষার্থীকে
সার্টিফিকেট ও পুরস্কার প্রদান করা হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

September 2018
M T W T F S S
« Aug   Oct »
 12
3456789
10111213141516
17181920212223
24252627282930
আরও পড়ুন