২৫শে জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

EN

দারিদ্র্য বিমোচনে ক্ষুদ্রঋণ তেমন কার্যকর না : মুহিত

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৩:০৪ পূর্বাহ্ণ , ১৩ এপ্রিল ২০১৮, শুক্রবার , পোষ্ট করা হয়েছে 6 years আগে

নিজস্ব প্রতিবেদক:  অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেছেন, সার্বিকভাবে দারিদ্র্য বিমোচনে ক্ষুদ্রঋণ তেমন একটা কার্যকর না। তবে গ্রামীণ অর্থনীতিতে নারীর ক্ষমতায়নে ক্ষুদ্রঋণের ভূমিকা অনস্বীকার্য।

বৃহস্পতিবার পল্লী কর্ম-সহায়ক ফাউন্ডেশনের (পিকেএসএফ) চেয়ারম্যান ও অর্থনীতিবিদ ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদ রচিত ‘সোসিও ইকোনমিক অব বাংলাদেশ ট্রুথ দ্য ডিকেটস’ নামক সঙ্কলন গ্রন্থের প্রকাশনা উৎসবে তিনি এসব কথা বলেন।

পিকেএসএফ মিলনায়তনে এই প্রকাশনা উৎসবে প্রধান অতিথি ছিলেন অর্থমন্ত্রী। এতে সভাপতিত্ব করেন সাবেক অর্থমন্ত্রী এম সাইদুজ্জামান। প্রকাশিত গ্রন্থের ওপর আলোচনা করেন পিকেএসএফের প্রাক্তন ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. কাজী মেসবাহ্ উদ্দিন আহমেদ, বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্টের (বিআইবিএম) মহাপরিচালক ড. তৌফিক আহমদ চৌধুরী এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক নাজমা বেগম।

মুহিত বলেন, ১৯৭৭ সালে ড. কাজী খলীকুজ্জমান আহমদের নেতৃত্বে পরিচালিত একটি গবেষণা ফলাফলে দেখা যায় যে, আমাদের গ্রামাঞ্চলে মানুষরা তাদের মোট সময়ের ৬০ শতাংশ ব্যয় করেন বিভিন্ন উৎপাদনমুখী কর্মকাণ্ডে, যা গ্রামীণ অর্থনীতির বিষয়ে আমাদের নতুন করে ভাবতে শেখায়।

অর্থমন্ত্রী আরও বলেন, প্রায় ৪০ বছরের বিভিন্ন লেখার এই সঙ্কলনের শুরুর দিকে দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে দাতা সংস্থাগুলোর অযাচিত হস্তক্ষেপের যেমন সমালোচনা করা হয়েছে, তেমনি ২০০৯ পরবর্তী সময়ে এসব সংস্থাগুলো প্রকৃত অর্থেই যে উন্নয়ন সহযোগীদের মতো আচরণ করছে, সেটিও উল্লেখ রয়েছে।

গ্রন্থটি মূলত প্রায় চার দশক ধরে লেখকের বিভিন্ন নিবন্ধ, প্রবন্ধ ও ভাষণের একটি অসাধারণ সঙ্কলন, যা যে কোনো অর্থনীতিবিদের জন্য একটি স্বপ্নের অর্জন বলে মন্তব্য করেন সাবেক অর্থমন্ত্রী এম সাইদুজ্জামান।

তিনি বলেন, প্রায় ৪০ বছর ধরে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষপটের বিভিন্ন পর্যায়কে কেন্দ্র করে সুলিখিত প্রবন্ধগুলো কালের সাক্ষী। নীতি-নির্ধারণী পর্যায় থেকে শুরু করে মাঠ পর্যায়ে দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে কর্মরত সকলের জন্য এই বইটি দরকার হবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

April 2018
M T W T F S S
 1
2345678
9101112131415
16171819202122
23242526272829
30  
আরও পড়ুন