২৭শে জানুয়ারি, ২০২৩ ইং | ১৪ই মাঘ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

EN

রাগ নিয়ন্ত্রনের সজহ কিছু উপায়

বার্তা সম্পাদক

প্রকাশিত: ৮:৪৮ অপরাহ্ণ , ২৩ মার্চ ২০১৮, শুক্রবার , পোষ্ট করা হয়েছে 5 years আগে

ব্রাহ্মণবাড়িয়া টাইমস ডেস্কঃ ক্ষ্রোধ রূপ অনল অর্থাৎ রাগের ভীবৎস রূপটি ঠিক যেন আগুনের মতো। এটি আমাদের স্বাভাবিক আচরণের অংশ নয় বরং আমরা যখন কোন পরিস্থিতিতে অস্বাভাবিক হয়ে যাই তখনই হঠাৎ রেগে যাই। মারামারি, ভাংচুর বা রাগ দেখানো অনেক মানসিক রোগের সাধারণ উপসর্গ। কিছু কিছু মানুষ আছেন যারা হঠাৎ হঠাৎ খুব সাধারণ কারণে এমন রেগে যান ,যে আশ পাশের সবাই হতভম্ব হয়ে যায়। ঐ ব্যক্তি নিজেও বুঝতে পারেন যে তার রেগে যাওয়াটা ঠিক স্বাভাবিক না কিন্তু তিনি নিজেকে সংযত রাখতে পারেন না। এটি এক ধরণের মানসিক রোগ। চিকিৎসা বিজ্ঞান হঠাৎ রেগে যাওয়া এই রোগের নাম দিয়েছে ইন্টারসিটেন্ট এক্সপ্রেসিভ ডিস অর্ডার বলে।

রাগ আমাদের আবেগের একটি স্বাভাবিক অংশ। কিন্তু এটি যখন নির্দিষ্ট সীমানা অতিক্রম করে তখন তা আর কোন স্বাভাবিক ব্যাপার থাকে না। সে সময় প্রয়োজন পড়ে একে নিয়ন্ত্রণের। নয়তো এ রাগ আমাদের ব্যক্তিগত, পারিবারিক, ক্যারিয়ার ও সামাজিক জীবনকেও করতে পারে ক্ষতিগ্রস্থ।

হঠাৎ রাগ বা ইম্পালস কন্ট্রোল ডিসঅর্ডার কি কারণে হয়ে থাকে, এ নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। তবে বর্তমানে এর কারণ উৎঘাটনে গবেষণা চলছে। মনে করা হয়, একজন মানুষের বেড়ে ওঠার প্রক্রিয়ায় ধারণাগত ও আচরণের বিবর্তন এবং মস্তিষ্কের কিছু রাসায়নিক পদার্থের কমবেশি হওয়ার কারণে এই সমস্যা হয়ে থাকে।

হঠাৎ রেগে যাওয়াকে নিয়ন্ত্রনের উপায়

হুট করে এমন রেগে গিয়ে খুন খারাবি পর্যন্ত হয়ে যাচ্ছে এমন ঘটনাও শোনা যায়। রাগ এমন পর্যায়ে চলে যাওয়ার আগেই সেটি নিয়ন্ত্রণ করা দরকার। কিন্তু রাগকে কিভাবে নিয়ন্ত্রণ সম্ভব?

মনোচিকিৎসা কেন্দ্র ‘আর্ক’ এর একজন মনোবিজ্ঞানী মধুরিমা সাহা হিয়া বলছেন, ‘যখন রাগটি স্বাভাবিকের পর্যায়ে থাকবে না তখনই তা নিয়ন্ত্রণের দরকার।’

তিনি রাগ নিয়ন্ত্রনের জন্য চারটি সহজ টিপস দিয়েছেন। তিনি বলছেন, তাৎক্ষণিক কিছু কাজ আমরা করতে পারি। যেমন,

১ যে জায়গাটিতে রেগে যাওয়ার মতো কিছু ঘটেছে সেখান থেকে সরে যাওয়া।

২ যার ওপরে রাগ হয়েছে – তার কাছ থেকে সরে যাওয়া।

৩ তার সাথে তখনই নয়, বরং খানিক পরে কথা বলা।

৪ হাতের কাছে যদি বরফ থাকে তাহলে তা হাত দিয়ে ধরে থাকা। বরফ মেজাজ শীতল করতেও সহায়তা করে।

তিনি আরও বলেন, ‘যদি সম্ভব হয় যে কাপড়ে আছেন তাতেই গোসল করে ফেলুন। নিশ্বাসের একটি ব্যায়াম করে দেখতে পারেন। সেটি করার পদ্ধতি হল, রাগ থেকে মনটাকে সরিয়ে নিশ্বাসের দিকে মনোযোগ দেয়া। বুক ভরে গভীর নিশ্বাস নেয়া, সেটাকে কিছুক্ষণ ধরে থাকা, কিছুক্ষণ পর বাতাস ছেড়ে দেয়া। সেটি রাগ কমাতে সাহায্য করে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

আর্কাইভ

March 2018
M T W T F S S
 1234
567891011
12131415161718
19202122232425
262728293031  
আরও পড়ুন